1. admin@dailysadhinbangladesh.com : admin :
  2. n.ganj.jasim@gmail.com : নিজস্ব প্রতিবেদক: : নিজস্ব প্রতিবেদক:
  3. sohag42000@gmail.com : দৈনিক স্বাধীন বাংলাদেশ : দৈনিক স্বাধীন বাংলাদেশ
  4. mamun.info_bd@yahoo.com : স্বাধীন বাংলাদেশ : স্বাধীন বাংলাদেশ
মঙ্গলবার, ০৩ অগাস্ট ২০২১, ০৩:৪৯ পূর্বাহ্ন

বিদ্যুৎ জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের উজ্জ্বল নক্ষত্র নসরুল হামিদ বিপু

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • সময় : শনিবার, ৩ জুলাই, ২০২১
  • ৪৮ বার পঠিত
সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

স্বাধীন বাংলাদেশ রিপোর্ট : নসরুল হামিদ বিপু’র জন্ম ১৯৬৪ সালের ১৩ নভেম্বর। তিনি আওয়ামী লীগের একজন নেতা এবং দুইবারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য। তার নির্বাচনী এলাকা ঢাকা-৩ কেরানীগঞ্জ থেকে দশম জাতীয় নির্বাচনে জয়লাভ করেন। বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ সরকারের বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। নসরুল হামিদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ডিগ্রী অর্জন করেন। তিনি যুক্তরাষ্ট্রের বোস্টনে অবস্থিত ইউনিভার্সিটি অব হার্ভার্ড এর জন এফ কেনেডি স্কুল থেকে সার্টিফিকেট প্রোগ্রাম অন লিডারশিপ সম্পন্ন করেন।নসরুল হামিদ তরুণ বয়স থেকেই রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন। তিনি আওয়ামী লীগের তৃণমুল পর্যায় থেকে আস্তে আস্তে সাংগঠনিক পদ্ধতিতে আজকের এই পর্যায়ে এসেছেন। ১৯৯৪ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত কেরানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্পাদক ছিলেন। ১৯৯৭ সালে তিনি আওয়ামী লীগের সহকারী সেক্রেটারি নির্বাচিত হন এবং ১২ বছর এই দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ২০০১ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ছিলেন। ঢাকা-৩ আসন থেকে নবম জাতীয় নির্বাচনে জয়ী হওয়ার পর তিনি প্রথমবারের মত সংসদ সদস্য হন।২০১৪ সালে তিনি দ্বিতীয়বারের মতো নির্বাচিত হন এবং বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পান। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে নসরুল হামিদ বিপু ২ লাখ ২১ হাজার ৩৫১ ভোট জয় লাভ করেন। অন্যদিকে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির গয়েশ্ব চন্দ্র রায় ১৬ হাজার ৬১২ ভোট।রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের পাশাপাশি নসরুল হামিদ একজন সফল ব্যবসায়ী ও সংগঠক। তিনি হামিদ গ্রুপের চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি রিয়েল এস্টেট অ্যান্ড হাউজিং এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ, রিহ্যাব এর সাবেক সভাপতি এবং আবাহনী স্পোর্টিং ক্লাব এর পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।নসরুল হামিদের জন্ম রাজনৈতিক পরিবারে। তার পিতা মরহুম হামিদুর রহমান মহান মুক্তিযুদ্ধের আগে আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন এবং পরবর্তীতে বাংলাদেশ সরকারের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুব কাছের সহযোগী হিসেবে পরিচিত ছিলেন। নসরুল হামিদের মা হাসনা হামিদও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সক্রিয় রাজনীতিতে অংশ নিয়েছিলেন।স্পেনের রাজা একাদশ ফিলিপ বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতে বিশেষ অবদানের পাশাপাশি নবায়নযোগ্য জ্বালানী এবং পাশাপাশি স্পেনে সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক জোরদারে অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপুকে স্পেনের সর্বোচ্চ বেসামরিক পদক ‘দি কমিটমেন্ট টু দ্য নাম্বার অব দ্য সিভিল মেরিট অর্ডার’ সম্মানজনক এই পুরস্কারে ভূষিত করেন।স্পেনের রাজার পক্ষে, স্প্যানিশ রাষ্ট্রদূত আলভারো ডি সালাস গত ১৭ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় প্রতিমন্ত্রী কাছে এই পদক হস্তান্তর করেন। বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপুর সফল কিছু উন্নয়নমূলক কাজের চিত্র তুলে ধরা হলো : বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপুর সবচেয়ে বড় সফলতা বিদ্যুৎখাতে। দেশের মোট জনগোষ্ঠীর ৯৮ শতাংশ এরই মধ্যে বিদ্যুৎ সেবার আওতায় আনা হয়েছে বলে দাবি বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপুর। বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী জানান, বিদ্যুতের গ্রাহক সংখ্যা বর্তমানে ৩ কোটি ৮৭ লক্ষ এবং দেশের প্রায় ৯৮ শতাংশ জনগোষ্ঠী বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় এসেছে। অবশিষ্ট ২ শতাংশ জনগোষ্ঠীর অধিকাংশের অবস্থান প্রত্যন্ত অফগ্রিড এলাকায়। এ সকল এলাকায় সাবমেরিন ক্যাবল এবং সোলার মিনিগ্রিডের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সুবিধা পৌঁছে দেয়ার কার্যক্রম চলমান রয়েছে। নসরুল হামিদ মনে করেন, সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় বিদ্যুৎ খাতে উন্নয়নের এ ধারা অব্যাহত থাকলে অচিরেই ‘শেখ হাসিনার উদ্যোগ, ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ’ স্লোগানের সফল বাস্তবায়ন সম্ভব হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী ও বলিষ্ঠ নেতৃত্বে বর্তমান সরকার বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত, উন্নত, সমৃদ্ধ সোনার বাংলাদেশ নির্মাণে প্রত্যয়ী তারা। এই কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য অর্জনের পথে অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রার অন্যতম মূল নিয়ামক বিদ্যুৎ। বর্তমান সরকারের সময়োচিত ও বিচক্ষণ সিদ্ধান্তের ফলে গত ১১ বছরে বিদ্যুৎ উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণতাসহ বিদ্যুৎ খাতে অভূতপূর্ব সাফল্য অর্জিত হয়েছে। নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের লক্ষ্যে যশোরেও বিদ্যুৎ লাইন মাটির নিচে নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু। সারা দেশে প্রায় চার কোটি স্মার্ট প্রি-পেমেন্ট মিটার স্থাপনের টার্গেট রয়েছে সরকারের। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে এক কোটি মিটার স্থাপন করা হবে। এর আগে গত জানুয়ারিতে দেশের প্রথম এলাকা হিসেবে সিলেটে মাটির নিচ দিয়ে বিদ্যুৎ সঞ্চালন শুরু হয়েছে। ভারত থেকে বাংলাদেশে প্রথম এলএনজি আমদানির চুক্তি এক সমঝোতা-পত্র সই হয়েছে।এটি চূড়ান্ত হলে এটাই হবে ভারত থেকে বাংলাদেশে প্রথম এলএনজি আমদানির চুক্তি।পেট্রোবাংলার এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিবিসির কাছে এই সমঝোতা সই হওয়ার কথা স্বীকার করেছেন। এইচ এনার্জির প্রধান নির্বাহী দর্শন হীরানন্দানি বলছেন, “ভারত আর বাংলাদেশের মধ্যে জ্বালানি শক্তির ক্ষেত্রে সহযোগিতার এটা একটা মাইল ফলক। প্রয়োজনীয় ছাড়পত্র সবই যোগাড় হয়েছে এরপর খুব দ্রুত এই প্রকল্প রূপায়নের দিকে এগিয়ে যাব আমরা।”এই সংস্থাটি পশ্চিমবঙ্গ থেকে বাংলাদেশ সীমান্ত পর্যন্ত গ্যাস পাইপলাইন বসানো এবং তা ব্যবহার করার ছাড়পত্র আগেই পেয়েছে ভারতের পেট্রোলিয়াম এন্ড ন্যাচারাল গ্যাস রেগুলেটরি বোর্ডের থেকে। পূর্ব মেদিনীপুর জেলার কানাই চট্টায় তাদের এলএনজি টার্মিনাল থেকে নদীয়ার শ্রীরামপুর অবধি নিজস্ব পাইপলাইন দিয়েই পেট্রোবাংলাকে গ্যাস দেয়া হবে। এই গ্যাস মূলত বাংলাদেশের পশ্চিমাঞ্চলে ব্যবহারের জন্য সরবরাহ করবে পেট্রোবাংলা। নসরুল হামিদ বিপুর প্রতিমন্ত্রী মেয়াদে ২০০৯ সাল থেকে এবছরের জুন পর্যন্ত ১১১ টি নতুন বিদ্যুৎকেন্দ্র করা হয়েছে।রাজধানীর গ্যাস বিতরণ ব্যবস্থাকে ডিজিটাল নেটওয়ার্কের আওতায় আনার উদ্যোগ নিয়েছেন প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু। তিনি জানান, ঢাকার গ্যাস পাইপলাইনের বেশিরভাগ ৩৫-৪০ বছরের পুরোনো ও প্রায় জরাজীর্ণ। এ শহরে ৫০ বছরের পুরোনো পাইপলাইনও রয়েছে। এসব লাইন পরিবর্তনের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তিতাসের জন্য এক হাজার ২০০ কোটি টাকার একটি প্রকল্প পাস হয়েছে। এর মাধ্যমে রাজধানীতে দুই হাজার কিলোমিটার বিতরণ লাইন প্রতিস্থাপন করা হবে। সঞ্চালন ব্যবস্থা স্ক্যাডার আওতায় আসবে। হরতাল, ধর্মঘট কিংবা যে কোন সংকটে জ্বালানি তেল সরবরাহ স্বাভাবিক রাখতে পাইপলাইন স্থাপন করতে যাচ্ছে সরকার। এছাড়া, সন্ত্রাসী বা জঙ্গি হামলা থেকে রক্ষায় বিদ্যুৎ কেন্দ্র, জ্বালানি ও গ্যাস ক্ষেত্রের জন্য বিশেষ বাহিনী গঠন করার কথা জানিয়েছেন বিদ্যুৎ জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী। চট্টগ্রামের আনোয়ারা উপজেলায় কোরিয়ান রপ্তানি প্রক্রিয়াজাতকরণ অঞ্চলে (কেইপিজেড) ৪০ মেগাওয়াট উৎপাদন ক্ষমতাসম্পন্ন দেশের একক বৃহত্তম রুফ-টপ সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প চালু হয়েছে। প্রথম পর্যায়ে এই প্রকল্প থেকে ১৬ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে। এখান থেকে কেইপিজেডের নিজস্ব চাহিদা মিটিয়ে উদ্বৃত্ত বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করা হবে। আগামী অক্টোবরের মধ্যে এই প্রকল্প থেকে ২০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হবে বলে আশা করছে কেইপিজেড কর্তৃপক্ষ। গত ২০জুন কোরিয়ান ইপিজেডের সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্পের উদ্বোধন করেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু। সেসময় এটিকে দেশের মধ্যে বৃহত্তম একক ছাদ সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প বলে জানান মন্ত্রী।


সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর
Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031  

ফেসবুকে আমরা

© All rights reserved © ২০২১ দৈনিক স্বাধীন বাংলাদেশ
Theme Customized BY Theme Park BD