দৈনিক যুগের চিন্তায় প্রকাশিত সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন প্যানেল মেয়র আলহাজ্ব মতি

সংবাদটি শেয়ার করুন:

স্বাধীন বাংলাদেশ রিপোর্ট :

দৈনিক যুগের চিন্তায় প্রকাশিত সংবাদের তীব্র নিন্দা ও  প্রতিবাদ জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের প্যানেল মেয়র-২, ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানা যুবলীগের সংগ্রামী সভাপতি আলহাজ্ব মতিউর রহমান মতি। গতকাল পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ প্রতিবাদ জানান তিনি। গতকাল শুক্রবার দৈনিক যুগের চিন্তা পত্রিকায় প্যানেল মেয়র আলহাজ্ব মতিউর রহমান মতিকে হেয় করে “কাউন্সিলর মতির ঘনিষ্ঠ রিগ্যান গাঁজাসহ গ্রেফতার ” সংক্রান্ত একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়।যার পুরো অংশ জুড়েই করা হয়েছে মিথ্যাচার। সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো প্রতিবাদে প্যানেল মেয়র মতি বলেন- গত বৃহস্পতিবার ট্যাংকলরী গাড়ি থেকে ডিবি কর্তৃক  ৫০ কেজি গাঁজা উদ্ধারের বিষয়টি ফলাও করে  বাংলাদেশের সকল গণমাধ্যম ও প্রিন্ট মাধ্যমে  প্রচারিত হয়েছে। সংবাদটি আমারও দৃষ্টিগোচর হয়েছে। কিন্তু যুগের চিন্তায় প্রকাশিত সংবাদে ৫০ কেজি গাঁজা উদ্ধার এর পরিবর্তে লেখা হয়েছে ৩৬ কেজী। যেখানে সকল গণমাধ্যম বলছে ৫০ কেজি গাজা উদ্ধারের কথা আর যুগের চিন্তা লিখেছে  ৩৬ কেজী। এর থেকেই অনুমান করা যায় একটি কুচক্রী মহল যেভাবে সাংবাদিকদের ভুল তথ্য দিয়ে প্রভাবিত করেছে তারা সংবাদটি সেভাবে ছেপেছে। সংবাদটির সত্য-মিথ্যার ক্ষেত্রে কোন যাচাই-বাছাই করা হয়নি। আমি এ পত্রিকার সাথে সংশ্লিষ্ট  সাংবাদিক ভাইদের বলবো কার সাথে কার ছবি তা না খুঁজে আসল অপরাধীকে খুঁজুন। সত্যকে খুঁজে বের করার চেষ্টা করেন। আমি নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের একজন নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি।একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে জনগণকে সেবা দেওয়াটাই আমার কাজ। সে লক্ষেই অনেক সময় বিভিন্ন মানুষ আমার কাছে বিভিন্ন কাজের জন্য আসে। সংবাদে যে ছবিটি ব্যবহার করা হয়েছে এবং বারবিকিউ পার্টির কথা বলা হয়েছে সেদিন আমার বাড়িতে বন্ধ হয়ে যাওয়া আদমজী স্কুলের পূর্ণমিলনী নিয়ে আলোচনা অনুষ্ঠান ছিল। সেসময় গোদনাইলের মেঘনা ডিপোতে কর্মরত কিছু শ্রমিক তাঁদের বিভিন্ন বিষয়ে সমস্যার কথা বলতে আমার বাসভবনে উপস্থিত হয়। আলোচনা শেষে তারা অনেকেই আমার সাথে ছবি তুলতে চায়। তাদের  আবদার রক্ষার্থে আমিও তাদের সাথে ছবি তুলি। এসব শ্রমিকদের মধ্যে অনেকেই আমার অপরিচিত। তারা তাদের সমস্যার বিষয়ে কথা শেষে চলে যায়। অথচ শ্রমিকদের সাথে এ ছবি কে ব্যবহার করে আমাকে জড়িয়ে মিথ্যা প্রোপাগান্ডা ছড়ানো হয়েছে। অথচ সংবাদের কোথাও যে ট্যাংকলরী তে মাদকদ্রব্য উদ্ধার করা হয়েছে সেটির মালিকের নাম এবং এসব মাদকদ্রব্যের সাথে কারা কারা জড়িত তাদের নাম-পরিচয় উল্লেখ করা হয়নি। তাই আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে অনুরোধ থাকবে আসামিদের রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করে এসব মাদক চোরাচালানের সাথে যারা যারা যুক্ত তাদেরকেও গ্রেফতার করা হোক। এছাড়াও তাঁর বিরুদ্ধে এসব অপপ্রচার রোধে সাংবাদিকদের সহযোগিতাও কামনা করেন তিনি। প্যানেল মেয়র মতিউর রহমান মতি বলেন, মাদকের বিরুদ্ধে আমার অভিযান দীর্ঘদিনের, যা এখনো অব্যাহত রয়েছে। আমি আমার দলের কোনো নেতা-কর্মী মাদকের সাথে জড়িত থাকলে তাদেরকেও ছাড় দেই না। তিনি বলেন, আমি আমার ৬নং ওয়ার্ড কে সম্পূর্ণ মাদকমুক্ত ওয়ার্ড হিসেবে কাউন্সিলর হিসেবে দায়িত্বভার গ্রহণ করার পর থেকেই ঘোষণা করে এসেছি। তিনি আরো বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনীত এসকল  অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা, ভিত্তিহীন, বানোয়াট ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য এবং আমার ওয়ার্ডবাসীর মাঝে বিভ্রান্তি ছড়ানোর  হীন উদ্দেশ্যেই আমার বিরুদ্ধে একটি কুচক্রি মহলের ইন্দনে  চক্রান্ত চলছে। আমি এসব চক্রান্তে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য সকলের প্রতি জন্য উদাত্ত আহ্বান জানাচ্ছি।


সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *