বন্দর স্কুলঘাট যাত্রী ছাউনী ভেঙ্গে ফেলায় যাত্রীসাধারনের চরম দূর্ভোগ

সংবাদটি শেয়ার করুন:

স্বাধীন বাংলাদেশ রিপোর্র্ট:
বন্দরে স্কুলঘাটে যাত্রী ছাউনী ভেঙ্গে ফেলার কারনে চরম দূর্ভোগের শিকার হচ্ছে ওই ঘাটে চলাচলরত যাত্রী সাধারণরা। রোদ ও একটু বৃষ্টি হলেই আর দাঁড়ানোর জায়গা থাকেনা ওই যাত্রী ছাউনিতে। ভেজা কাপড় নিয়েই বাড়ি ফিরতে হয় যাত্রী সাধারনদের। জনদূর্ভোগের ঘটনায় চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেছে সাধারন যাত্রীগন। জানা গেছে,নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন বন্দর স্কুল ঘাট এলাকায় পুরনো যাত্রী ছাউনীটি কয়েক মাস পূর্বে ভেঙ্গে ফেলা হয়। নতুন আঙ্গিকে যাত্রী ছাউনী করবে বলে আশ^াস দেন নাসিক কর্তৃপক্ষ। সে অনুযায়ী স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ের কাছে যাত্রী ছাউনীর নকশা জমা দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। এদিকে এই যাত্রী ছাউনীটি ভেঙ্গে ফেলায় স্কুলঘাট দিয়ে শহরে যাতায়াতরত যাত্রীরা চরম ভোগান্তিতে পড়ে। সাধারন যাত্রীদের কথা চিন্তা করে ঘাট ইজারাদার বাঁশ ও মোটা চান্দিনা দিয়ে অস্থায়ী ভাবে যাত্রী ছাউনী করেন। সাধারন যাত্রীগন যাতে একটু বৃষ্টির মধ্যে যাত্রী ছাউনিতে দাঁড়ানোর জায়গাসহ প্রচন্ড জলসানো রৌদ্র থেকে পরিত্রান পেতে যাত্রী ছাউনীতে মানুষ একটু আশ্রয় খুজে পায়।
খেয়া পাড়াপারের সাধারন যাত্রীগনরা গনমাধ্যমকে জানান, শহরে টানবাজার ঘাট হতে বন্দর স্কুল ঘাট পার হলেই একটি যাত্রী ছাউনী ছিল। যেখানে মানুষ একটু দাঁড়াতে পারত। নাসিক কর্তৃপক্ষ ওই যাত্রী ছাউনিটিকে ভেঙ্গে ফেলায় চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছে। প্রচন্ড রোদ মাথায় নিয়ে কোন সময় কর্মস্থলে এবং বাড়ি ফিরতে হচ্ছে যাত্রী সাধারনকে। নাসিক মেয়র ডা. সেলিনা হায়াত আইভী স্থায়ীভাবে যাত্রী ছাউনী করে দেওয়ার জোর দাবী জানাচ্ছি।
এ ব্যাপারে নাসিক’র এক প্রকৌশলী বলেন,নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন স্কুল ঘাটের যাত্রী ছাউনীটি ভেঙ্গে ফেলার কারন হচ্ছে নতুনভাবে এটার নকশা জমা দেয়া হয়েছে। খুব দ্রুতই আপনারা যাত্রী ছাউনীটি দৃশ্যমান পাবেন।
এ ব্যাপারে নাসিক ২২নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সুলতান আহমেদ ভূইয়া জানান,নাসিক মেয়র ডা. সেলিনা হায়াত আইভী আপা শহরকে আধুনিক করতে দিনরাত কাজ করে যাচ্ছে। স্কুলঘাট যাত্রী ছাউনীটি অচিরেই নতুন রুপে দৃশ্যমান হবে বলে আমরা আশা করছি। যাত্রীদের সুবিধার্থে পুরনো যাত্রী ছাউনী ভেঙ্গে নতুন ভাবে করার প্রক্রিয়া চলছে। নাগরিক সুবিধা শতভাগ নিশ্চিৎ করার লক্ষে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।


সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *