সিদ্ধিরগঞ্জে উপকারের শাস্তি

সংবাদটি শেয়ার করুন:

স্বাধীন বাংলাদেশ রিপোর্ট:
সিদ্ধিরগঞ্জে উপকার করতে গিয়ে শাস্তি পেলেন মামুন নামে একজন দোকান মালিক। দুই নারীর মধ্যে চলমান ঝগড়া ও মারামারি থামানোয় দোকানে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে দোকানদারকে মারধর ও দোকান ভাঙচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল শুক্রবার (২১ মে) বেলা সাড়ে ১১টায় নাসিক ৩নং ওয়ার্ডস্থ আদর্শনগর এলাকায় আলী আকবর রোড সংলগ্ন বন্ধন ইলেকট্রনিক এন্ড ফার্নিচারে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে।
এতে দোকান মালিক মোঃ মামুন খাঁন মাথা ও শরীরের বিভিন্ন অংশে গুরুতর জখমসহ আঘাতপ্রাপ্ত হলে তাকে উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ ভিক্টোরিয়া হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। এঘটনায় জড়িত ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

এর আগে ঐ এলাকার গ্যারেজ মালিক তাছলিমার সাথে একই এলাকার ভাড়াটিয়া ফাতেমা বেগমের ঝগড়া হয়। ঝগড়া মারামারিতে রুপ নিলে বন্ধন ইলেকট্রনিক এন্ড ফার্নিচারের মালিক মামুন খান গিয়ে থামিয়ে দেন।
এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ফাতেমা বেগমের ছেলে আরিফ ৮-৯ জনের একটি কিশোর গ্যাং নিয়ে এসে মামুন খানের দোকানে সন্ত্রাসী হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে এবং মামুন খানকে মারধর করে।
আহত মামুন খান জানায়, হামলায় তার মাথা ফেটে গেছে। তিনটি সেলাই লেগেছে। গ্যারেজের তাছলিমাকেও মারধর করেছে অভিযুক্তরা। এছাড়া দোকানের ১টি থাই গ্লাস, ২টি টিভি, ১টি খাট, দোকানের শার্টার ভাঙচুর সহ নগদ ১ লক্ষ ৫৬ হাজার টাকা নিয়ে গেছে হামলাকারীরা। এ ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী মামুন খান।
এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) শফিকুল ইসলাম জানান, মারামারির ঘটনায় এক পক্ষের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ফাতেমা, কুলছুম, আমেনা ও শতাব্দী নামে ৪ জনকে আটক করা হয়েছে। পরবর্তী আইনানুগ কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।


সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *