সোনারগাঁয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ও আহতদের পাশে সহায়তার হাত বাড়ানো জেলা পুলিশ সুপার জায়েদুল আলমকে ট্যাংকলরী শ্রমিক নেতা আশ্রাফ উদ্দিনের ধন্যবাদ জ্ঞাপন

সংবাদটি শেয়ার করুন:

স্বাধীন বাংলাদেশ রিপোর্ট :
সোনারগাঁয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ও আহত সবজি ব্যবসায়ীদের পরিবারের মাঝে আর্থিক সহায়তা দিয়ে সাহায্য করায় নারায়ণগঞ্জ জেলা সুযোগ্য পুলিশ সুপার (এসপি) মোঃ জায়েদুল আলমকে অভিনন্দন জানিয়েছে বাংলাদেশ ট্যাংকলরি শ্রমিক ইউনিয়ন রেজি নং বি-১৭৫৩ কেন্দ্রিয় কমিটির যুগ্ন-সাধারন সম্পাদক, গোদনাইল মেঘনা শাখার সংগ্রামী সভাপতি মোঃ আশ্রাফ উদ্দিন।
গত ৮ মে শনিবার সকালে জেলা পুলিশ সুপার মোঃ জায়েদুল আলম নিহত দুই সবজি বিক্রেতা খবির হোসেন ও আমির হোসেন পরিবারের মাঝে ৫০ হাজার করে ১লাখ টাকা এবং আহত দুই সবজি ব্যবসায়ী খলিল মিয়া ও আল আমিনের পরিবারের মাঝে ২৫ হাজার করে ৫০ হাজার টাকা তুলে দেন এসপি। এসপি মোঃ জায়েদুল আলমকে ধন্যবাদ জানিয়ে মোঃ আশ্রাফ উদ্দিন বলেন, আমাদের নারায়ণগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম স্যার নারায়ণগঞ্জ জেলায় আসার পর একের পর আইন শৃঙ্খলা উন্নয়নে কাজ করছেন। জেলা পুলিশ নারায়ণগঞ্জ জেলাকে একটি শৃঙ্খলার মধ্যে নিয়ে এসেছে এবং জেলা থেকে সকল অপরাধ রোধে যথেষ্ট ভূমিকা পালন করছে তার জন্য স্যারের প্রতি আমরা নারায়ণগঞ্জবাসী কৃতজ্ঞ। তাছাড়া করোনার এ মহামারিতে বিরাট ভূমিকা পালন করে যাচেছন। মানুষের নিরাপত্তার জন্য নারায়ণগঞ্জ পুলিশ নিরলসভাবে কাজ করছে। তারই একটি উজ্জ্বল উদাহরণ গত ৮ মে নারায়ণগঞ্জ পুলিশ সুপার সোনারগাঁ একটি সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত ও আহত পরিবারদের মাঝে আর্থিক সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। তাই স্যারকে আমি আমাদের ট্যাংকলরি শ্রমিক ইউনিয়ন গোদনাইল মেঘনা শাখার পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাই। তার এই মানবতার কাজ অব্যাহত থাকবে বলে আমরা আশা রাখি। উল্লেখ্য যে,গত শনিবার (১ মে) ভোরে সোনারগাঁয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের দড়িকান্দী এলাকায় কাভার্ডভ্যানের ধাক্কায় সবজি ভর্তি পিকআপ ভ্যান উল্টে তিন সবজি বিক্রেতা নিহত ও দুইজন আহত হন। নিহতরা হলেন উপজেলার সনমান্দী ইউনিয়নের আমদী গ্রামের কবির হোসেন নাজিরপুর এলাকার ইয়ানুসের ছেলে আমির হোসেন । আহতরা হলেন,সোনারগাঁয়ের গুলজার মিয়ার ছেলে খলিল মিয়া ও মৃত আমিন উদ্দীনের ছেলে আল আমিন ।


সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *