সিদ্ধিরগঞ্জে মহল্লার রাস্তার মধ্য দিয়ে গেইট নির্মাণে

সংবাদটি শেয়ার করুন:

সিদ্ধিরগঞ্জ প্রতিনিধি:

সিদ্ধিরগঞ্জে একটি মহল্লার প্রধান সড়কের (হিরাঝিল ১৪  নং রোডের পুরান পট্টি নামে পরিচিত) দুই পাশে গেইট দিয়ে জনসাধারণের চলাচলে বাধা দেওয়াকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। নাসিক সিদ্ধিরগঞ্জের ১ নম্বর ওয়ার্ডে মক্কীনগর মাদ্রাসা জনৈক মনির হোসেন নামে এক প্রভাবশালী মহল্লার প্রধান সড়কের দুই পাশে গেইট নির্মান করায় এলাকাবাসীর মধ্যে এ উত্তেজনা দেখা দেয়।গতকাল বৃহস্পতিবার(২৮ এপ্রিল) দুপুরে এ নিয়ে এলাকায় দু’পক্ষের মধ্যে চরম উত্তেজনা দেখা দেয় এবং বাকবিতান্ডা হয়।  এ নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংর্ঘের আশংকা প্রকাশ করছে এলাকাবাসী। ‘‘মহল্লার সড়কের মধ্যে কেউ গেইট নির্মান করে জনসাধারণের চলাচল বাধা দিতে পারে না’’ বলে জানিয়ে নাসিক ১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ওমর ফারুক জানান, এ রস্তা দিয়ে সিাআইখোলা ও মক্কীনগর মাদরাসা এলাকার হাজার হাজার মানুষ দীর্ঘ দিন যাবত চলাচল করে আসছে। মক্কীনগর মাদ্রাসার রবিউল ইসলাম জানান, মাদ্রাসার সামনের অংশ সরকারী জমি হওয়ায় তারা লীজ নিয়ে দোকান পাট নির্মান করে ভাড়া দিয়েছেন। ঐ জমি মহল্লার মনির হোসেন নামে এক প্রভাবশালীর সাথে আদালতে মামলা চলে আসছে। বর্তমানে মাদ্রাসা বন্ধ থাকার সুযোগে মহল্লার প্রধান সড়কের দু’ পাশে গেইট নির্মান করছে মনির হোসেন। এ রস্তা দিয়ে প্রতিদিন সিাআইখোলা ও মক্কীনগর মাদরাসা এলাকার হাজার হাজার মানুষ চলাচল করে আসছে। রাস্তার মধ্যে গেইট দেওয়ার ফলে জুরুরী রোগীর গাড়িও চলাচল বন্ধ হয়ে যাবে।একই এলাকার বাসিন্ধা এডভোকেট মজিবুর রহমান বলেন, এই রাস্তা দিয়েই আমরা দীর্ঘদিন যাবত চলাচল করে আসছি। গেইট দিয়ে বন্ধ করে দেওয়ার ফলে রাতের বেলায় আমাদের চলাচলে অনেক সমস্যার মধ্যে পড়তে হবে। আমরা চাই রাস্তার মধ্যে গেইট না করে আলোচনার মাধ্যমে এর সমাধান করা হউক। এ বিষয়ে মনির হোসেন দাবি করেন, এটা রাস্তা তার ব্যাক্তিগত রাস্তা। তাই সে তার জমির মধ্যে গেইট নির্মান করেছে। নিরাপত্তার জন্য। তাছাড়া তিনি মাদরাসাসহ তার জমির উপর নির্মান করেছে দাবি করেন।এ বিষয়ে কথা হলে, নাসিক ১নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ওমর ফারুক জানান, এ রস্তা দিয়ে সিাআইখোলা ও মক্কীনগর মাদরাসা এলাকার হাজার হাজার মানুষ দীর্ঘ দিন যাবত চলাচল করে আসছে। তাছাড়া ‘‘মহল্লার সড়কের মধ্যে কেউ গেইট নির্মান করে জনসাধারণের চলাচল বাধা দিতে পারে না’’। রাস্তা দিয়ে জনসাধারণ চলাচল করবে এটা তাদের অধিকার।##


সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *