1. admin@dailysadhinbangladesh.com : admin :
  2. n.ganj.jasim@gmail.com : নিজস্ব প্রতিবেদক: : নিজস্ব প্রতিবেদক:
রবিবার, ০৯ মে ২০২১, ০৬:৩৭ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
মুনিয়া আত্মহত্যা : প্ররোচনা মামলাটি বেআইনি? নাসিক প্যানেল মেয়র আলহাজ্ব মতিকে ফুলেল শুভেচ্ছা বন্দরে বাল্য বিয়ের পর স্বামীর নির্যাতনে মেধামী ছাত্রীর আত্নহত্যা একজন দক্ষ ও জনবান্ধব প্রশাসনিক কর্মকর্তা শুক্লা সরকার শিশু গৃহপরিচারিকাকে ধর্ষণ মালিকের ছেলে গ্রেপ্তার বন্দরে মোটর সাইকেল চুরি, যুবক কারাগারে বন্দরে ইয়াবাসহ দুই যুবক গ্রেপ্তার দৈনিক সোজা সাপ্টা, ইয়াদ, রুদ্রবার্তাসহ কয়েকটি পত্রিকায় প্রকাশিত ওয়ারেন্ট ইস্যুর সংবাদে আশরাফ উদ্দিনের ব্যাখ্যা সিরাজ মন্ডলের সহযোগীর বাগানে গাঁজার গাছ ## সাংবাদিকদের সাথে কথা বন্ধ: সিরাজ মন্ডল সিদ্ধিরগঞ্জে র‌্যাবের অভিযানে অবৈধ কারখানা থেকে ভেজাল খাদ্য ও পন্যসামগ্রী জব্দ ॥ দুইজন আটক

২০১৪ সালের ২৭ এপ্রিল নারায়ণগঞ্জের ইতিহাসে বয়ে এনেছিল একটি কালো অধ্যায়// সাত বছরেও কার্যকর হয়নি ৭খুনের রায়

প্রশাসন
  • সময় : বুধবার, ২৮ এপ্রিল, ২০২১
  • ১০ বার পঠিত
সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি:
২০১৪ সালের ২৭ এপ্রিল। নারায়ণগঞ্জের ইতিহাসে দিনটি বয়ে এনেছিল একটি কালো অধ্যায়। ৭ বছর পূর্বে ২০১৪ সালের এই দিনে র‌্যাবের কিছু বিপথগামী কর্মকর্তা ও সদস্যের সহযোগিতায় ঘটে সাত খুনের মতো ঘৃণ্য এক কাজ। সারাদেশের মানুষের সামনে নারায়ণগঞ্জ চিত্রিত হয় সন্ত্রাসের জনপদ হিসেবে।
ব্যস্ততম ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ সংযোগ সড়ক (লিংক রোড) থেকে দিনে দুপুরে উধাও হয়ে যায় দুটি গাড়িসহ সাতজন মানুষ। তাদের অপেক্ষায়, সন্ধানে পার হয় তিন দিন। স্বজনদের সেই অপেক্ষার অবসান ঘটে মর্মান্তিকভাবে। ৩০ এপ্রিল শীতলক্ষ্যা নদীতে পাওয়া যায় নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের তৎকালীন প্যানেল মেয়র নজরুল ইসলাম, তার গাড়িতে থাকা তাজুল ইসলাম, মনিরুজ্জামান স্বপন ও সিরাজুল ইসলাম লিটন, আইনজীবী চন্দন সরকার ও তার গাড়িচালক ইব্রাহিমের লাশ। একদিন পর মেলে স্বপনের গাড়ি চালক জাহাঙ্গীরের লাশ। সবার হাত-পা বাঁধা, সবগুলো লাশের পেট চেরা। সাথে ইটের বস্তা বাঁধা। এমন ঘটনায় শোক আর ক্ষোভে স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিলেন নারায়ণগঞ্জের মানুষ। স্তম্ভিত হয়ে পড়েছিল গোটা বাংলাদেশ।
ঘটনার এক দিন পর কাউন্সিলর নজরুলের স্ত্রী সেলিনা ইসলাম বাদী হয়ে আওয়ামী লীগ নেতা (পরে বহিষ্কৃত) নূর হোসেনসহ ছয়জনের নাম উল্লেখ করে ফতুল্লা মডেল থানায় মামলা করেন। আইনজীবী চন্দন সরকার ও তাঁর গাড়িচালক ইব্রাহিম হত্যার ঘটনায় ১১ মে একই থানায় আরেকটি মামলা হয়। এই মামলার বাদী চন্দন সরকারের জামাতা বিজয় কুমার পাল।
নৃশংস এই হত্যাকান্ডের তদন্তে নামে পুলিশ। পুলিশের তদন্তে বেরিয়ে আসে ভয়াবহ এই হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত র‌্যাব-১১ এর কয়েকজন অসাধু কর্মকর্তা আর আওয়ামী লীগ নেতা নূর হোসেনের নাম। বাহিনী থেকে বহিষ্কৃত ও চাকরিচ্যুত হওয়ার পর সাত খুনের মামলায় গ্রেপ্তার হন র‌্যাব-১১ এর তৎকালীন অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্ণেল তারেক মোহাম্মদ সাঈদ, উপ-অধিনায়ক মেজর (অব.) আরিফ হোসেন, লে. কমান্ডার (অব.) এম এম রানাসহ কয়েকজন র‌্যাব সদস্য। গ্রেফতার আসামিরা সাতজনকে গুম করে নৃশংসভাবে হত্যা করে নদীতে ফেলে দেয়ার ঘটনার লোমহর্ষক বর্ণনা দেয় আদালতে।
সাত খুনের মামলায় মোট ৩৫ জনকে অভিযুক্ত করা হয়। তাঁরা হলেন চাকরিচ্যুত লেফটেন্যান্ট কর্ণেল তারেক সাঈদ মোহাম্মদ, মেজর আরিফ হোসেন, লেফটেন্যান্ট কমান্ডার মাসুদ রানা, হাবিলদার এমদাদুল হক, আরওজি-১ আরিফ হোসেন, ল্যান্স নায়েক হীরা মিয়া, ল্যান্স নায়েক বেলাল হোসেন, সিপাহি আবু তৈয়ব, কনস্টেবল মো. শিহাব উদ্দিন, এসআই পূর্ণেন্দু বালা, করপোরাল রুহুল আমিন, এএসআই বজলুর রহমান, হাবিলদার নাসির উদ্দিন, এএসআই আবুল কালাম আজাদ, সৈনিক নুরুজ্জামান, কনস্টেবল বাবুল হাসান ও সৈনিক আসাদুজ্জামান নূর। কারাগারে থাকা বাকি আসামিরা হলেন সাবেক কাউন্সিলর নূর হোসেন, তাঁর সহযোগী আলী মোহাম্মদ, মিজানুর রহমান দীপু, রহম আলী, আবুল বাশার ও মোর্তুজা জামান (চার্চিল)। পলাতক আসামিরা হলেন করপোরাল মোখলেছুর রহমান, সৈনিক আবদুল আলীম, সৈনিক মহিউদ্দিন মুনশি, সৈনিক আল আমিন, সৈনিক তাজুল ইসলাম, সার্জেন্ট এনামুল কবীর, এএসআই কামাল হোসেন, কনস্টেবল হাবিবুর রহমান এবং নূর হোসেনের সহযোগী সেলিম, সানাউল্লাহ ছানা, ম্যানেজার শাহজাহান ও ম্যানেজার জামাল উদ্দিন।
দীর্ঘ সময় পর ২০১৭ সালের ১৬ জানুয়ারি নারায়ণগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ সৈয়দ এনায়েত হোসেন সাত খুন মামলায় ২৬ আসামিকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদন্ডের আদেশ দেন। পরবর্তীতে ১৫ জনের মৃত্যুদন্ড বহাল রেখে বাকি ১১ জনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ডের আদেশ দেন হাইকোর্ট। এছাড়া নয়জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ডের রায় হাইকোর্টেও বহাল থাকে। তবে মামলার আসামিরা সুপ্রীম কোর্টে আপীল করেছেন। আপীলের রায় এখনও হয়নি।


সংবাদটি শেয়ার করুন:
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর
Mon Tue Wed Thu Fri Sat Sun
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
2627282930  

ফেসবুকে আমরা

© All rights reserved © ২০২১ দৈনিক স্বাধীন বাংলাদেশ
Theme Customized BY Theme Park BD