ফতুল্লা থানায় অপহরণ মামলা সুমা মন্ডলকে ৪ মাসেও উদ্ধার করতে পারে নাই পুলিশ

সংবাদটি শেয়ার করুন:

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ
নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা এলাকা থেকে সুমা মন্ডল (১৩) কে অপরহন করেছে হান্নান ওরফে আকাশ ও অজ্ঞাতনামা কয়েকজন। শিশুটির মা দিপালী মন্ডল (৩৮)বাদী হয়ে ফতুল্লা থানায় অপহরণ মামলা দায়ের করেন। সঞ্জিব মন্ডলের মেয়ে সুমা মন্ডল (১৩) ফতুল্লা থানার সাইনবোর্ড মৃধা মার্কেট এর জাপানি বাড়ির ভাড়াটিয়া। সুমা মন্ডল সাইনর্বোডস্থ প্রিন্ট ফ্যাক্টরীতে চাকুরি করতেন। কারখানা থেকে আসা যাওয়ার পথে হান্নান ওরফে আকাশ (৪০) ও অজ্ঞাতনামা ৩/৪ জন সুমা মন্ডল কে কু -প্রস্তাব দেয়। সুমা মন্ডল কু-প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় তাকে গত ২০২০ সালের ১৫ ই ডিসেম্বর রাত ৭ ঘটিকার সময় বাসায় যাওয়ার পথে হান্নান ও অজ্ঞাত নামা কয়েকজন সুমা মন্ডলকে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। এর পর থেকে অনেক খোজাখুজি করে তাকে পাওয়া যায় নাই। পরে সুমার মা ফতুল্লা থানায় ১৫ ই ডিসেম্বর একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে ২১ ডিসেম্বর নারী ও শিশু নির্যাতনের দমন আইন ২০০০ সাল সংশোধনী ২০০৩ অপহরণ সহায়তা করার অপরাধ ৭/৩০ ধারায় মামলা দায়ের করেন সুমার মা।। মামলা এসআই মিনহাজ মামলাটির তদন্ত দায়িত্ব দিলেও গত ৪ মাসে তিনি সুমা মন্ডলকে উদ্ধার করতে পারে নাই। এতে করে মেয়ে সুমা মন্ডলের জন্য দিশেহারা হয়ে উঠেছে পরিবারটি।
এদিকে বাদী দিপালী মন্ডল জানান, সুমা মন্ডলকে হান্নান ওরফে আকাশ আমার ১৩ বছরের শিশু মেয়েকে অপহরণ করে বিবাহ করেছে বলে জানান হান্নান। তার একটি স্ত্রী রয়েছে। তার ধর্ম ইসলাম আর আমাদের ধর্ম হিন্দু। সে আমার মেয়েকে নির্যাতন করে আর মাঝে মাঝে ফোন করে মুক্তিপন বাবদ ১ লক্ষ টাকা দাবী করছে। মুক্তিপনের টাকা দিতে না পারলে আমার মেয়েকে হত্যা করবে ফোনে জানান হান্নান। বর্তমানে সে আমার মেয়েকে খুলনা জেল কারাঘারের থেকে খুব কাছে আমতলী গ্রামে নিয়ে আটক করে রাখছে। মেয়েকে উদ্ধার জন্য পুলিশ সুপার ও র‌্যাব ১১ এর হস্তক্ষেপ কামনা করছেন ভুক্তভোগি মা।


সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *