শারুন নয়, নির্যাতনের কারণে সাইফাই ডিভোর্স দেন শারুনকে

সংবাদটি শেয়ার করুন:

চট্টগ্রামে যেখানেই অপরাধ-অপকর্ম, সেখানেই তাঁর নাম। স্ত্রী নির্যাতন থেকে শুরু করে হুমকি-ধমকি, চাঁদাবাজি, দখলবাজি, প্রতারণা, মাদক ও জুয়া থেকে হেন কোনো অপরাধ নেই যেখানে তাঁর নাম উঠে আসে না। এই গুণধর ব্যক্তি হুইপপুত্র শারুন।

এবার তার স্ত্রী নির্যাতনের অনেক তথ্য ফেসবুকে ভেসে বেড়াচ্ছে। যেখানে উঠে এসেছে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের কারণেই তার স্ত্রী সাইফা মিম শারুনকে ডিভোর্স নোটিস পাঠিয়ে ছিলো।

২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে ছাড়াছাড়ি হয়ে যায় শারুন চৌধুরী ও তার স্ত্রী সাইফা মিমের। পারিবারিকভাবে বনিবনা না হওয়া, আমেরিকা অথবা বাংলাদেশ থাকা নিয়ে মতপার্থক্যকেই বিবাহ বিচ্ছেদের কারণ হিসেবে উল্লেখ করেন শারুন। তবে শারুনের প্রাক্তন স্ত্রী সাইফা মিম জানিয়েছেন ভিন্ন কথা।

সাইফা মিমের বক্তব্য, শারুন তাকে অমানসিক নির্যাতন করতো। শরীরে এমন কোনো জায়গা বাকি নেই যেখানে শারুনের দেওয়া আঘাত নেই। তার এসবে শারুনের বাবা-মারও সায় ছিল। তুচ্ছ কারণে শারুন মারধর করতো। পিস্তল দিয়ে ভয় দেখাতো। তার পরিবার নিয়েও আপত্তিকর কথা বলতো। শারুনের মারধরের বিষয়ে অভিযোগ দিলে শারুনের বাবা বলতেন, বিয়ের এতদিন পরও তুমি কেন মানিয়ে নিতে পারছো না! শারুনের মা বলতো, আমার ছেলের রাগ ক্ষণিকের মধ্যে ঠাণ্ডা হয়ে যায়।

অমানসিক নির্যাতন সইতে না পেরে শারুনকে ডিভোর্স দেন সাইফা। তবে শারুনের দাবি, তিনিই ডিভোর্স দিয়েছেন সাইফাকে। প্রাক্তন স্ত্রীর বিরুদ্ধে মিথ্যা পরকীয়ার অভিযোগ এনেছে শারুন।

শারুন ও সাইফার একটি কন্যা সন্তান আছে। কিন্তু মায়ের সঙ্গে মেয়ের দেখা করতে দেয় না শারুন। মেয়েটি এখন ফুফুর কাছে বড় হচ্ছে। সাইফার প্রশ্ন, মা থাকতে মেয়ে কেন ফুফুর কাছে বড় হবে?

সাইফা জানান, এখনও শারুন ও তার পরিবার তাকে হুমকি দেয়। বলে, ‘আদালতে যাও। দেখি কী করতে পারো!’


সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *