সিরাজ মন্ডলের সহযোগী একাধিক মামলার আসামী শ্রমিকদল নেতা ইসমাইল গ্রেফতার, কোর্টে প্রেরণ

সংবাদটি শেয়ার করুন:

বিশেষ প্রতিনিধি:
নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে হেফাজতের হরতালে সহিংসতার ঘটনায় করা মামলায় গত বৃহস্পতিবার রাতে নাসিক ৬নং ওয়ার্ডের সাবেক বিতর্কিত কাউন্সিলর বিএনপি-জামাতের সেল্টারদাতা হিসাবে অভিযুক্ত সিরাজ মন্ডলের আরও এক জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃত আসামি ইসমাইল হোসেন ইমন। নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের নাসিক ৬ নং ওয়ার্ড এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। তিনি শ্রমিক দলের রাজনীতির সাথে জড়িত এবং মাদকসহ একাধিকবার গ্রেফতার হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। গ্রেফতারকৃতকে গতকাল কোর্টে প্রেরন করা হয়েছে। এর আগে গত ২০১৮সালে ইয়াবা সেবন করার সময় সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের অভিযানে গোদনাইল এসও এলাকা থেকে জাতীয় শ্রমিক ফেড়ারেশনের নামধারী সভাপতি বিএনপি নেতা এই ইসমাঈল হোসেন গ্রেফতার হয়েছিল। সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের তৎকালীন এস আই দিলীপ তাকে গ্রেফতার করেন। ইসমাইলের বিরুদ্ধে মাদক আইনে মামলা দায়ের করা হয়। এই মামলায় সে জেলও খাটে। অভিযোগ রয়েছে ডিএনডি খালের উপর অবৈধভাবে অফিস নির্মান করে শ্রমিক ফেডারেশনের কাজ চালাতো ইসমাইল। শ্রমিক ফেডারেশনের ব্যানারে সে চালাতো বিএনপি দলীয় কার্যক্রম। এখানে বসেই বিভিন্ন গার্মেন্টেসে চাদাবাজিসহ বিভিন্ন ধরনের নৈরাজ্যের পরিকল্পনা হতো। পরবর্তীতে ডিএনডি খাল অবৈধ উচ্ছেদের সময় ভাঙ্গা পড়ে ইসমাইলের অবৈধ স্থাপনা শ্রমিক ফেডারেশনের অফিস। পরবর্তীতে তার নিজস্ব অফিসকে বানানো হয় জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের অফিস। সেখানে বসেই চলে বিএনপি’র বিভিন্ন ধরনের কর্মসূচী পালনের কার্যক্রম। চলে মাদক সেবীদের আড্ডা আর সন্ত্রাসীদের আনাগোনা।
উল্লেখ্য, সিদ্ধিরগঞ্জের গোদনাইল এসও এলাকার কয়েকজন চোরাই তেল ব্যবসায়ী তাদের গোমড় ঢাকতে হত্যা করেন পুলিশ কনস্টেবল মফিজকে। সেই চাঞ্চল্যকর কনষ্টেবল মফিজ হত্যা মামলায় নাসিক ৬নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম মন্ডল চার্জশিটভুক্ত আসামী। চার্জশীটে তার নাম ৯ নাম্বারে। যার মামলা নং ১৩(১০)১৩। এই হত্যাকান্ডের পরও অপরাধীদের বিচার না হওয়ায় মফিজ হত্যাকান্ড ঘটনার পর থেকে সিরাজ মন্ডলকে স্থানীয় বিএনপি-জামাতের শেল্টারদাতা হিসাবে বেছে নিয়েছে বলে স্থানীয় এলাকাবাসীর অভিযোগ। এদিকে সিরাজ মন্ডলও অপরাধিদের সেল্টার দিতে বাগিয়ে নেয় বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন না’গঞ্জ জেলার সভাপতির পদ। আর এই পদ দিয়ে সিরাজ মন্ডলের আ’লীগের বিভিন্ন কর্মকান্ড পরিচালনা করতে থাকে। সিরাজ মন্ডলের আ’লীগের লোক সাজায় বিএনপি-জামাতের দাগীর লোকজনও সিরাজ মন্ডলকে নিরাপদ ঘাটি মনে করে আশ্রয় নিতে থাকে। দিন দিন সিদ্ধিরগঞ্জে বেশ সমালোচনার কেন্দ্র বিন্দুতে চলে এসেছে সিরাজ মন্ডল। সাবেক কাউন্সিলর ও জেলা বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সভাপতি সিরাজ মন্ডলের বিরুদ্ধে অপরাধীদের শেল্টারদাতার অভিযোগ উঠলেও তিনি বরাবরই তা অস্বীকার করেন। কিন্তু হেফাজতের মামলার প্রধান আসামীকে সিরাজ মন্ডলের সামনে থেকে থানা পুলিশ গ্রেফতার করার পর এবার তার আরেক সহযোগী মাদকসহ একাধিক মামলার আসামী শ্রমিকদল নেতা ইসমাইল হোসেন ইমনকে গ্রেফতারের পর সিরাজ মন্ডলের আর কিছু বলার অবকাশ নেই বলে স্থানীয় নেতাকর্মীরা প্রতিক্রিয়ায় জানান।


সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *