জনসাধারণকে করোনাভাইরাস সচেতনায় মাঠে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট

সংবাদটি শেয়ার করুন:

শহর প্রতিনিধি:
নারায়ণগঞ্জে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সরকার ঘোষিত লকডাউনের ৫ম দিনে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসকের নির্দেশে শহরের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়েছে জেলা প্রশাসনের একাধিক ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসব অভিযানে জরিমানার পাশাপাশি জনসাধারণে মধ্যে মাস্ক বিতরণ ছাড়াও যেসকল শপিং কমপে¬ক্স ও মার্কেট বিকেল ৫টার পর খোলা ছিলো বন্ধ করা হয়। গতকাল শুক্রবার (৯ এপ্রিল) জেলা প্রশাসনের একাধিক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের টিম নারায়ণগঞ্জ সাইনবোর্ড থেকে শুরু করে শহরের বিভিন্ন জায়গায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন। এসময় নারায়ণগঞ্জ দুই নং রেল গেইট এলাকায় ও তার আশেপাশে রেস্তোরা, হোটেল,মার্কেট এবং সিনেমা হল সহ শহরের বিভিন্ন জায়গায় বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদা মাসুম,কামরুল হাসান মারুফ ও আব্দুল জব্বারের নেতৃত্বে চালানো হয় ভ্রাম্যমাণ অভিযান।অভিযানে যারা মাস্ক ব্যবহার না করছে তাদেরকে করোনাভাইরাস সংক্রামণ ঠেকাতে সচেতন করা হয় এবং যারা স্বাস্থ্যবিধি মেনে না চলছে তাদেরকে জরিমানা করা হয়। একই সঙ্গে সচেতনতার জন্য মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করা হয়। অভিযান পরিচালনাকালে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল জব্বার বলেন,সকাল থেকেই সাইনবোর্ড,ভূইঘর,ঝালকুড়ি,চাষাড়া,নারায়ণগঞ্জ দুই নং রেল গেইট এলাকায় ও তার আশেপাশে রেস্তোরা, হোটেল,মার্কেট এবং সিনেমা হল সহ শহরের বিভিন্ন জায়গায় চালানো হয় এ ভ্রাম্যমাণ অভিযান।এসময় পথচারী সহ মার্কেটের ব্যবসায়ী,ক্রেতাদের সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য মাস্ক ব্যবহার করতে নির্দেশ প্রদান করেন এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে মার্কেট, রেস্তোরা, হোটেল চালানোর নির্দেশ দেওয়া হয়।এছাড়া সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত মার্কেট খোলা রাখতে বলা হয়েছে।যে সকল মার্কেট বিকেল ৫টা পরও খোলা ছিলো তা বন্ধ করা হয়। তিনি আরো বলেন‘মূলত সরকার ঘোষিত লকডাউন বাস্তবায়নে আজ নগরের বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এসব অভিযানে জরিমানার পাশাপাশি সচেতনতার জন্য মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।’


সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *