কন্ট্রাকটার শরীফের ফেসবুক স্ট্যাটার্সে তোড়পাড়…….. রয়েল রিসোর্টের ঘটনা সাজানো নাটক

সংবাদটি শেয়ার করুন:

বিশেষ প্রতিবেদক:
সোশ্যাল মিডিয়া ‘ফেসবুকে’ হেফাজতে ইসলামের নেতা মামুনুল হকের পক্ষে লেখালেখি করার অভিযোগ উঠেছে নাসিক ৬ নং ওয়ার্ড বিএনপি’র সভাপতি অকিল উদ্দিন ভূঁইয়ার বোনের জামাই ও নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক ফয়সালের বাবা শরিফ ওরফে কন্টাকটার শরীফের বিরুদ্ধে। সোনারগাঁও রয়েল রিসোর্টে হেফাজত নেতা মামুনুল হকের ঘটনার বিষয়কে কেন্দ্র করে তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে লিখেন ” সোনারগাঁওয়ে রয়েল রিসোর্টের ঘটনা সাজানো নাটক ছাড়া আর কিছুই না”। রয়েল রিসোর্টে ঘটনার দিন তার ব্যবহৃত শরিফুজ্জামান শরীফ নামে আইডি থেকে হেফাজত নেতা মামুনুল হকের পক্ষ নিয়ে এমন পোস্ট করা হলে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। কারণ তিনি নিজেকে সব সময় আওয়ামী লীগ অনুসারী পরিচয় দিয়ে থাকেন। তার আইডি থেকে এমন প্রশ্নে হতবাক হয়ে এলাকাবাসী। এ নিয়ে সমালোচনার ঝড় বইলে পরে তার আইডি থেকে পোস্টটি সরিয়ে ফেলেন বলে জানা যায়। কিন্তু অনেকেই পোস্টটিকে স্ক্রিনশর্ট হিসেবে রেখে দেন। কারণ বিএনপি জামাত ক্ষমতায় থাকাকালে তিনি এলাকায় আধিপত্য বিস্তার করেছেন আর এখন মুখে মুখে আওয়ামী লীগ পরিচয় দিয়ে কথিত আওয়ামী লীগ নেতাদের সাথে মিশে আবারও আধিপত্য বিস্তার করার চেষ্টা করছেন। শরিফ হেফাজতে ইসলামের চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে তাদের পক্ষ অবলম্বন করেও স্থানীয়দের সাথে এ সম্পর্কে তাদের পক্ষ অবলম্বন করে প্রায়ই মতামত দিয়ে থাকেন বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসী। তার পরিবারের অনেকেই বিএনপি-জামাত রাজনীতির সাথে যুক্ত। তিনি নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের সাবেক এক কাউন্সিলরের ব্যবসায়ীক পার্টনার হিসেবে কাজ করেন বলে জানা যায়। শরীফ ওরফে শরীফ কন্টাকটার হেফাজতের হরতালের দিন ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সাইনবোর্ড মোড় থেকে শিমরাইল পর্যন্ত এলাকায় পুলিশের ওপর হামলা এবং হত্যার চেষ্টা, গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ, সরকারি কাজে বাধা, আতঙ্ক সৃষ্টিসহ সহিংসতার অভিযোগ করা পুলিশের মামলায় এজাহারভুক্ত দুই নম্বর আসামি। শরীফ সহ সকল আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।


সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *