আ.লীগ নেতাকর্মীদের মারধর-বাড়িঘর ভাংচুর তারা সবাই চুপ বললেন খোকন সাহা

সংবাদটি শেয়ার করুন:

স্টাফ রিপোর্টার:
বর্তমানে করোনার এমন ভয়াবহ অবস্থা থেকে পরিত্রান পেতে বিষেশজ্ঞদের সবচেয়ে প্রথম পরামর্শ হলো মাস্ক পরিধান। এরই ধারাবাহিকতায় নারায়ণগঞ্জবাসিকে করোনার সংক্রামন থেকে রক্ষা করার লক্ষে সুরক্ষা সামগ্রী, সাবান ও মাস্ক বিতরণ করেছেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এড. খোকন সাহা।
 শনিবার (১০ এপ্রিল) বেলা ১১টার দিকে নারায়ণগঞ্জ পুরানকোর্ট এলাকায় খোকন সাহার চেম্বার প্রাঙ্গনে এ সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করা হয়।
এ সময় এড. খোকন সাহা বলেন, কিছুদিন পুর্বে এক সাংবাদিককে নিয়ে একটি ঘটনা ঘটছে। সেই জন্য কাউন্সিলর শফিকে একটি সামান্য মামলা দিসে, এ নিয়ে আজকে কিছু কিছু মানুষ অনেকে কথা বলছে, বিশেষ করে ‘গনসংহতি’। আমাদের দলের কিছু লোকজন তাদের লালন পালন করে বড় করতেছে। সোনারগাঁয়ে আওয়ামী লীগের কর্মীদের মারধর করছে, যুবলীগ-ছাত্রলীগের কর্মীদের মারছে, তাদের বাড়িঘর ভাংচুর করছে, এ নিয়ে কিন্তু তারা কোন কথা বলছে না। সবাই চুপ করে বসে আছে।
তিনি বলেন, আজকে সামান্য কিছু সামগ্রী আপনাদের কাছে দিচ্ছি। আপনারা এগুলো নিয়ে ঘরে ঘরে যান। প্রত্যেকের ঘরে পৌছে দিয়ে আসেন। এটাই হচ্ছে আমাদের অনুরোধ। আগামীতে যদি লকডাউন আরও বাড়ানো হয়, তাহলে ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতাকর্মীদের দ্বারা আপনাদের নিকট আমরা সেবা পৌছে দিবো।
তিনি আরও জানান, সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান ও শামীম ওসমানের সাথে আমার কথা হয়েছে। তাঁরা আমাকে নিশ্চিত করেছেন, করোনা পরিস্থিতি খারাপ হলে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে আমরা মানুষের পাশে দাঁড়াবো।
এরপর মাস্কগুলো প্রত্যেক ওয়ার্ডে পৌছে দেয়ার জন্য মহানগর আওয়ামী লীগের কর্মীদের কাছে দেয়া হয়। যাতে প্রত্যেক ওয়ার্ডের নেতাকমীদের কাছে মাস্ক গুলো দেয়া যায়।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি সাব্বির আহমেদ সাগর, নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সহ- সভাপতি এড. হান্নান আহম্মদ দুলাল, সহ- সভাপতি রবিউল ইসলাম, সংগঠনিক সম্পাদক এড. মাহমুদা মালা, দপ্তর সম্পাদক এড. বিদ্যুত কুমার সাহা, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সাফায়েত আলম সানি, এস.এম পারভেজ, মাসুম আহমেদ, কামরুল হাসান মুন্না, রফিকুল ইসলাম, আনিস আহমেদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদিন টুলু, সাইফুল আলম বিপ্লব, রমিজ উদ্দিন প্রমূখ।


সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *