প্রীতমের উপর হামলাকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে গণসংহতি’র মানববন্ধন অনুষ্ঠিত

সংবাদটি শেয়ার করুন:

স্টাফ রির্পোটার:
সারাদেশে সাংবাদিকদের উপর হামলা-মামলাসহ দৈনিক সংবাদচর্চার ফটো সাংবাদিক প্রীতমের উপর হামলার ঘটনায় হামলাকারীদের বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে গণসংহতি আন্দোলন।
গত শনিবার (৩ এপ্রিল) বিকালে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সামনে গণসংহতি আন্দোলনের নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার উদ্যোগে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
নারায়ণগঞ্জ গণসংহতি আন্দোলনের সমন্বয়কারী তরিকুল সুজনের সভাপতিত্বে ও নারায়ণগঞ্জ ছাত্র ফেডারেশনের সাবেক সভাপতি শুভ দেবের সঞ্চালনায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন, নারায়ণগঞ্জ গণসংহতি আন্দোলনের নির্বাহী সমন্বয়কারী অঞ্জন দাস, রাজনৈতিক শিক্ষা সম্পাদক মশিউর রহমান রিচার্ড, জেলা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি শহীদুল্লাহ রাসেল, সাধারণ সম্পাদক উজ্জল হোসাইন, যুগ্ম সম্পাদক জাহিদ হোসেন, সাংবাদিক সংগ্রাম পরিষদের দপ্তর সম্পাদক মশিউর রহমান, সাংবাাদিক সায়েম, সাংবাদিক ইমরান, সাংবাদিক রিপন মাহমুদ, দৈনিক সংবাদচর্চা পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার রাকিবুল ইসলাম, রেদোয়ান আরিফ, রয়েল টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধি আশিকুর রহমান সাজু, সাংবাদিক আলী, নারায়ণগঞ্জ কথা অনলাইন ডট কমের রিপোর্টার আরিফ হোসেন, নারায়ণগঞ্জ ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি ইলিয়াস জামান, সাধারণ সম্পাদক ফারহানা মানিক মুনা প্রমুখ।
মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, সাংবাদিক প্রীতমের উপর হামলার ঘটনার ১০-১২ দিন পেরিয়ে যাবার পরেও এখনও হামলাকারীদের কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি। আজ সকালে কয়েকজন সাংবাদিক যখন পুলিশের এক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাকে জিজ্ঞেস করেন, এতদিন হওয়ার পরও কেন কাউকে গ্রেফতার করা হয়নি? প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, হামলাকারীরা নাকি বার বার সিম পরিবর্তন করছে তাই তাদের লোকেশন ট্রেক করা যাচ্ছে না যার ফলে তাদের গ্রেফতার করতে আমাদের বেগ পেতে হচ্ছে। তিনি উল্টো সাংবাদিকদের বলেন, আপনারা তো সাংবাদিক আপনারা আমাদের তথ্য দিয়ে বা ছবি দিয়ে সহযোগিতা করুন, আমরা তাদের গ্রেফতার করবো। এই দায়িত্ব যদি সাংবাদিকদের হয় তাহলে পুলিশ কেন রয়েছে? জনগণ কেন তাদের ট্যাক্সের পয়সায় আপনাদের বেতন দিবে?
বক্তারা আরও বলেন, নয় বছর পেরিয়ে যাবার পরেও সাগর-রুনি হত্যকান্ডের বিচার হয়নি। ৭৯ বার মামলার শুনানি পিছানো হয়েছে। কিন্তু আজও কোন বিচার হয়নি। বন্দরে কয়েক মাস আগে সাংবাদিক ইলিয়াস হত্যাকান্ডের শিকার হন। সে ঘটনাতেও সাংবাদিকরা অনেক কর্মসূচি করেছে কিন্তু কোন কিছুই হয়নি। যারা হাজী রিপন ও কাউন্সিলর শফিউদ্দিনসহ হামলাকারীদের যারা শেল্টার দিচ্ছেন তাদের বলতে চাই, আপনারা ভাববেন না হাজী রিপন ও কাউন্সিলর শফিউদ্দিনকে দিয়ে আওয়ামীতন্ত্র বাচিয়ে রাখতে পারবেন। অনতিবিলম্বে সাংবাদিক প্রীতমের উপর হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনার জোর দাবি জানাচ্ছি।


সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *