করোনাকালে বছরজুড়ে মানবিক সেবায় নিয়োজিত দানবীর আলহাজ্ব নান্নু মুন্সী

সংবাদটি শেয়ার করুন:

আহসানুল হাবিব সোহাগ, চিফ রিপোর্টার :
বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের কেন্দ্রীয় যুগ্ন সাংগঠনিক সম্পাদক ও নারায়ণগঞ্জ জেলা আমীর আলহাজ্ব আতিকুর রহমান রহমান নান্নু মুন্সী। তিনি দেশের এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে চষে বেড়াচ্ছেন দলের সাংগঠনিক কাজে এবং বিভিন্ন দোয়া মাহফিলে। তার যেন বিশ্রাম নেই, প্রতিদিনই ব্যস্ত থাকেন ওয়াজ ও দোয়ার মাহফিল ও দলের সাংগঠনিক বিভিন্ন কর্মকান্ড নিয়ে। অনুষ্ঠানে কোথাও প্রধান অতিথি, আবার কোথাও সভাপতিত্ব হিসেবে দেখা যাচ্ছে। কর্মবান্ধব নেতা আলহাজ্ব আতিকুর রহমান নান্নু মুন্সী নিজের কথা ভাবেন না, তিনি ভাবেন মানুষকে নিয়ে,গরীব দুঃখী মানুষের কথা সবসময় বলেন। তিনি সাধ্যমত সাহায্য সহযোগিতা করছেন অসহায়দের। তিনি প্রমাণ করেছেন মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য। দুর্যোগকালে মানুষ সাহায্য সহানুভূতি চায়। আর যারা মানবিক মানুষ জীবন বাজি রেখে মহামারি দুর্যোগকালে অসহায় দরিদ্র মানুষের পাশে থেকে খাদ্যসামগ্রী ও অর্থ দিয়ে সহযোগিতা করেন। বর্তমানে বিশ্বব্যাপী চলতে থাকা মহামারি কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাসের থাবায় কর্মহীন অসহায় দরিদ্রদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণসহ নানাভাবে সাহায্য- সহযোগিতা করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ জেলা আমীর ও অনৈসলামিক কার্যকলাপ প্রতিরোধ কমিটি বাংলাদেশ আমীর আলহাজ্ব আতিকুর রহমান নান্নু মুন্সি।এক বছরেরও বেশি সময় ধরে চলতে থাকা কোভিড-১৯ করোনাভাইরাস মহামারিতে নারায়ণগঞ্জ জেলার নারায়ণগঞ্জ সদর, সিদ্ধিরগঞ্জ, ফতুল্লা, সোনারগাঁ, বন্দর, রূপগঞ্জ ও আড়াই হাজার থানার বিভিন্ন এলাকাসহ ঢাকার ডেমরার বড় ভাঙ্গা, বামৈল এলাকায় বিভিন্ন পেশার অসহায় কর্মহীন দরিদ্র নারী-পুরুষ ও শিশুদের মধ্যে চাল, ডাল, আলু, পেঁয়াজ, তেল, লবণ, ছোলা বুট ও সাবানসহ খাদ্যসামগ্রী ও নগদ অর্থ বিতরণ করে মানবসেবায় হাত বাড়িয়ে দেন আলহাজ আতিকুর রহমান নান্নু মুন্সি। এছাড়াও প্রতি শুক্রবার তার বড় ভাঙ্গাস্থ মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে এলাকার গরীবদের সাধ্যমত আর্থিক সাহায্য করছেন। এছাড়া দেশের বিভিন্ন মসজিদ, মাদ্রাসা, এতিমখানায় যথাসাধ্য সাহায্য সহযোগিতা করে থাকেন নান্নু মুন্সী। ডেমরার বড়ভাঙ্গা এলাকায় গিয়ে এলাকাবাসীর সাথে আলাপকালে তারা জানায়, আলহাজ্ব আতিকুর রহমান নান্নু মুন্সীর চেয়ে অনেক টাকা ওয়ালা সম্পদ ওয়ালা লোক রয়েছে এই এলাকায়। কিন্তু তাদের মন নেই, গরীবদের সাহায্য করা, মসজিদ, মাদ্রাসা ও এতিমখানায় দান করার। কিন্তু আতিকুর রহমান নান্নু মুন্সী সাহায্য সহযোগিতা ও দান অব্যাহত রেখেছেন। করোনা ভাইরাসের কঠিন সময়ে ৬৬ দিন লক ডাউনের সময় সরকারের পাশাপশি নান্নু মুন্সী একাই পায়ে হেঁটে গরীব মানুষের বাড়িঘরে গিয়ে খোঁজ নিয়েছেন সাধ্যমত আর্থিক সহযোগিতা করেছেন অসহায় ও কর্মহীন মানুষদের। ওই সময়ে তিনি যে মানব সেবায় নিয়োজিত ছিলেন তা দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে বলে এলাকাবাসীরা জানিয়েছেন। নান্নু মুন্সী যে সাহায্য সহযোগিতা করছেন তা তিনি তার ব্যবসায়ীক তহবিল থেকে করছেন। নান্নু মুন্সী সব সময় বলে থাকেন যতদিন আল্লাহ্ বাঁচিয়ে রাখেন ততোদিন মসজিদ, মাদ্রাসা, এতিম খানা, ওয়াজ মাহফিলে এবং গরীবদের সাধ্যমত আর্থিক সাহায্য সহযোগিতা করে যেতে চাই। তিনি মানুষের কল্যাণে নিজেকে বিলিয়ে দিতে চান। তিনি মানুষের মাঝে অমর হয়ে বেঁচে থাকতে চান মানুষের দোয়া ও ভালবাসায়।


সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *