মোদিকে এনে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীকে কলঙ্কিত করা হয়েছে ———–অধ্যাপক মাহবুবুর

সংবাদটি শেয়ার করুন:

শহর প্রতিনিধি :
স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী কারো ব্যক্তিগত অনুষ্ঠান নয়।মোদিকে এনে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীকে কলঙ্কিত করা হয়েছে। সীমান্তে কাটা তারের বেড়ায় ফেলানীর লাশের রক্তে যার হাত রঞ্জিত সেই মোদির আগমন জনগণ মেনে নিবে না।
গত শুক্রবার(২৬ মার্চ)বিকেলে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ নারায়ণগঞ্জ জেলার আয়োজনে ‘স্বাধীনতার ৫০ বছর মুক্তিযুদ্ধের লক্ষ্য, প্রত্যাশা ও প্রাপ্তি’ শীর্ষক আলোচনা সভা ও বনাঢ়্য র‌্যালিতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান উক্ত কথা বলেন।
মাহবুবুর রহমান আরো বলেন, মুসলামনের কাছে ইসলাম নিজের জীবনের চেয়েও প্রিয়।এদেশের ইসলাম টিকে থাকলে স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব টিকে থাকবে।ইসলাম না থাকলে স্বাধীনতা থাকবে না।ইসলামের ওপর ভিত্তি করেই দেশ স্বাধীন হয়েছিলো।এখন যারা ইসলাম সংবিধান থেকে বাদ দিতে চায় দেশের স্বাধীনতায় তাদের কোন অবদান ছিলো না। তিনি আরো বলেন, মেহমান আপ্যায়ন করা ইসলামের রীতি।এমনকি সে যদি আপন পিতার হত্যাকারীও হয় তবুও। এটা ইসলামের সৌন্দর্য। তাই বিদেশি সকল মেহমানদের ইসলামি আন্দোলন বাংলাদেশ থেকে স্বাগত। তবে নরেন্দ্র মোদির ক্ষেত্রে বিষয়টি আলাদা।কারন তার অতীত সহিংস, বৈষম্য ও সংখ্যালঘুদের ওপর অত্যাচার নিপীড়ন ঘটনা জড়িত। আর দেশের অধিকাংশ মানুষ ও দলমতের প্রবল বিরোধীতা সত্ত্বেও নরেন্দ্র মোদিকে সুবর্ণ জয়ন্তীতে দাওয়াতে দেশের স্বাধীনতাকেই প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। কারন সে এদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে আমন্ত্রিত হওয়ার নৈতিক যোগ্যতা রাখেন না বরং নরেন্দ্র মোদির মত উগ্র সাম্প্রদায়িক ব্যক্তি বাংলাদেশের স্বাধীনতার এই মাইলফলকে উপস্থিত থাকা স্বাধীনতার মূল চেতনার সাথে সাংঘর্ষিক।
সংগঠনের নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সভাপতি মোঃ নূর হোসাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মহানগরের সহ-সভাপতি গিয়াসুদ্দিন মুহাম্মদ খালিদ, শাহাদাত হোসাইন খান, সাধারণ সম্পাদক সুলতান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা শামসুল আলম, সহ-সাংগঠনিক ওমর ফারুক, অর্থ সম্পাদক আমির হোসাইন সহ প্রচার সম্পাদক ফারুক হাওলাদার প্রমূখ।


সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *