না.গঞ্জে জাতীয় গণহত্যা দিবস পালন

সংবাদটি শেয়ার করুন:

স্টাফ রির্পোটার:
কোভিড পরিস্থিতি বিবেচনায় রেখে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ২৫ মার্চ জাতীয় গণহত্যা দিবস উপলক্ষে নানা কর্মসূচি পালন করেছে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসন। গতকাল বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) বিকেলে সদর উপজেলার পঞ্চবটির বদ্ধভূমিতে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপন করা হয়। এছাড়া মোমশিখা প্রজ্বালন, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, প্রতিকী ব্লাক আউট কর্মসূচি পালিত হয়।
নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মো. মোস্তাইন বিল্লাহ’র নেতৃত্বে পঞ্চবটির বধ্যভূমিতে শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে পুষ্পস্তবক অর্পন করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডের সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) সেলিম রেজা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোস্তাফিজুর রহমান, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাহিদা বারিক প্রমুখ।
এ সময় জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ শহীদদের স্মরণে স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় তাদের ত্যাগ ও অবদানের কথা তুলে ধরে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় নিজেকে উদ্বুদ্ধ করতে হবে। শহীদদের অবদানের কথা স্মরণ রেখে উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণে কার্যকরভাবে আত্মনিয়োগ করতে হবে।
২৫ মার্চ গণহত্যা দিবসে বিভিন্ন মসজিদ ও অন্যান্য ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে কালরাতে নিহতদের স্মরণে বিশেষ মোনাজাত ও প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়। বিকেল সাড়ে ৪টায় শহরের শায়েস্তা খান সড়কে অবস্থিত সরকারি গণগ্রন্থাগারে গণহত্যা দিবস উপলক্ষে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে আলোচনা সভা, গীতিনাট্যসহ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়। এ সময় মুক্তিযুদ্ধে শহীদের অবদানের বিষয়টি নতুন প্রজন্মের প্রাণে সঞ্চারণের উপর গুরুত্বারোপ করেন ডিসি মোস্তাইন বিল্লাহ। অনুষ্ঠানে কয়েকটি গীতিনাট্য মঞ্চায়নের মাধ্যমে ২৫ মার্চের গণহত্যার ভয়াবহ দিক ও মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতিরোধের ইতিহাস নতুন প্রজন্মের উদ্দেশ্যে তুলে ধরা হয়।
রাত সাড়ে ৮টায় শহরের প্রাণকেন্দ্র চাষাঢ়া চত্ত্বরে বিজয়স্তম্ভে গণহত্যা দিবস উপলক্ষে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়। রাত ৯টায় কেপিআই বা জরুরি স্থাপনা ব্যতীত ১ মিনিটের জন্য প্রতীকি ব্ল্যাক আউটের মধ্য দিয়ে কর্মসূচি সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।


সংবাদটি শেয়ার করুন:

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *